আলোড়ন নিউজ
Lead News ধর্ম সারাদেশ

আগামীকাল পবিত্র আশুরা

  • 175
  • 52
  • 9
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    238
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক, আলোড়ন নিউজ: পবিত্র আশুরা আগামীকাল। কারবালার শোকাবহ ও হৃদয়বিদারক ঘটনার এই দিনটি ধর্মীয়ভাবে বিশ্বের মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের কাছে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। মুসলিম বিশ্বে ত্যাগ ও শোকের প্রতীক হিসেবে এ দিনটি বিশেষ পবিত্র দিবস।

পবিত্র আশুরা পালনে পুরান ঢাকার হোসেনী দালান ইমামবাড়া সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। এরই মধ্যে তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতিও শতভাগ সম্পন্ন করেছে হোসেনী দালান কর্তৃপক্ষ। শোকাবহ কারবালা স্মরণে হযরত ইমাম হোসেইনভক্তরা নানা রীতিনীতির মাধ্যমে স্রষ্টার কাছে মনের আকুতি তুলে ধরছেন।

হিজরি ৬১ সনের ১০ মহররম এই দিনে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর দৌহিত্র হযরত ইমাম হোসেইন (রা.) ও তাঁর পরিবার এবং অনুসারীরা সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে যুদ্ধ করতে গিয়ে ফোরাত নদীর তীরে কারবালা প্রান্তরে ইয়াজিদ বাহিনীর হাতে শহীদ হন।

এজন্যই যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যদিয়ে সারা দুনিয়ার মুসলমানরা এ দিনটি পালন করে।

প্রায় ৪০০ বছরের ঐতিহ্যের বাহক কংক্রিটের হোসেনী দালানে নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ মনের আশা নিয়ে ইমাম হোসেনের প্রতীকী যারী মোবারক দর্শন করছেন।

মহরম মাসের শুরু থেকে ১০ তারিখ পর্যন্ত থাকে নানা কর্মসূচি। ‘মেহেদি নাযার’ নামে চলে বিশেষ মজলিশ, চলে প্রার্থনা। মূল আনুষ্ঠানিকতা তাজিয়া মিছিলকে ঘিরে হলেও এর আগে তিন দফা মিছিল বের করেন হোসেন ভক্তরা।

আরবি ভাষায় তাজিয়া শব্দটি শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করতে ব্যবহার হয়। কারবালার মর্মান্তিক শোকাবহ স্মৃতি স্মরণে তাজিয়া মিছিলের জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে হোসেনী দালান।

বাংলাদেশেও আগামীকাল মঙ্গলবার যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদা ও নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত হবে। এদিকে পবিত্র আশুরা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। আগামীকাল সরকারি ছুটি।

এদিকে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া পবিত্র আশুরা উপলক্ষে তাজিয়া শোক মিছিলে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন। রাজধানীর বড় কাটারা ইমামবাড়া, খোজা শিয়া ইসনুসারী ইমামবাড়া এবং বিবিকা রওজায় পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

প্রতিটি ইমামবাড়া সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হয়েছে। আর্চওয়ে ও মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে প্রত্যেক দর্শনার্থীর দেহ তল্লাশি করে অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ করানো হবে বলেও ডিএমপি কমিশনার উল্লেখ করেন।

এছাড়াও এবছর তাজিয়া মিছিলে ঢোল বাজিয়ে ছুরি, তলোয়ার ও লাঠিখেলা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ডিএমপি কমিশনার ইতোমধ্যেই জানিয়েছেন, নিরাপত্তার স্বার্থে এসব নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

তাজিয় মিছিলে ১২ ফুটের বেশি বড় নিশান, ব্যাগ, পোঁটলা, টিফিন ক্যারিয়ার বহন এবং আগুনের ব্যবহার করা যাবে না। মাঝপথে কেউ মিছিলে অংশ নিতেও পারবেন না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

Related posts

রিফাত হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে বরগুনায় মানববন্ধন

Ashish Mallick

ছাত্রকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদ্রাসার শিক্ষককে গ্রেপ্তার

Ashish Mallick

কুষ্টিয়ায় ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতার জন্য ছবি আহ্বান

Mamun Sheikh

Leave a Comment

* By using this form you agree with the storage and handling of your data by this website.