আলোড়ন নিউজ
Lead News রাজনীতি

আসাম ইস্যুতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে গভীর চক্রান্ত শুরু হয়েছে: ফখরুল

  • 251
  • 45
  • 15
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    315
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক,আলোড়ন নিউজ: স্বাধীনতার পর কোনো বাংলাদেশি ভারতে যায়নি বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, ‘আসাম ইস্যুতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে গভীর চক্রান্ত শুরু হয়েছে।’ দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বুধবার দুপুরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটি আয়োজিত মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, বাংলাদেশকে বিপদগ্রস্ত করার চক্রান্ত শুরু হচ্ছে। আমরা পরিষ্কার ভাষায় বলতে চাই- কোনো বাংলাদেশি ভারতে যায়নি স্বাধীনতার পরে। এটি নিয়ে গভীর চক্রান্ত শুরু হয়েছে, বাংলাদেশকে আবারও বিপদগ্রস্ত করার জন্য।

সম্প্রতি আসাম সফরে গিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ বলেছেন, জাতীয় নাগরিক তালিকায় যাদের নাম নেই, তাদের একজনকেও ভারতে থাকতে দেওয়া হবে না। সবাইকে ভারত ছাড়া করা হবে।

এই বক্তব্যের দিকে ইঙ্গিত করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘পার্শ্ববর্তী দেশ আমাদের প্রতিবেশি দেশ, বন্ধু দেশ- তাদের আসাম থেকে আজকে হুমকি দিচ্ছে, তাদের মন্ত্রীরা হুমকি দিচ্ছে, তাদের রাজনীতিবিদরা হুমকি দিচ্ছে যে, বাংলাদেশিরা অনু্প্রবেশ করেছে, তাদেরকে তারা বের করে দিয়ে আবার বাংলাদেশে পাঠাবে।’

‘আমরা পরিষ্কার ভাষায় ঘোষণা করতে চাই, কোনো বাংলাদেশি কখনো ভারতে যায়নি স্বাধীনতার পরে। আজকে গভীর চক্রান্ত শুরু হয়েছে বাংলাদেশকে বিপদগ্রস্ত করার জন্য, স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব বিপন্ন করার জন্য’— বলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু করতে না পারায় সরকারের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণে সরকার রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান করতে পারছে না। কারণ তাদের সেই বৈধতা নেই, সাহস নেই। এদিকে আসাম (ভারতের আসাম) থেকে হুমকি দেয়া হচ্ছে, সেখান থেকে নাকি বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদের খুঁজে বের করে আমাদের দেশে পাঠিয়ে দেয়া হবে। আমরা পরিষ্কার ভাষায় বলতে চাই- কোনো বাংলাদেশি স্বাধীনতার পরে কখনও ভারতে যায়নি।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার দাবি জানিয়ে ফখরুল বলেন, ‘তিনি অত্যন্ত অসুস্থ। তার ডায়াবেটিস অত্যন্ত বেড়ে গেছে, গায়ের ব্যথা বেড়ে গেছে, তিনি কারও সাহায্য ছাড়া হাঁটতে পারেন না, চলতে পারেন না। হুইল চেয়ারে চলছেন। কিন্তু এ সরকার, তার কর্মকর্তারা এবং ডাক্তাররা বলছেন তিনি নাকি সুস্থ হয়েছেন। মূলত তিনি একেবারে সুস্থ নন। অসুস্থ অবস্থায় তিনি কারারুদ্ধ দিন পার করছেন। আমরা তার সুচিকিৎসার জন্য মুক্তি দাবি করছি।’

সরকারের সমালোচনা করে ফখরুল বলেন, ‘এ সরকার ভোট ডাকাতি করে জোর করে ক্ষমতায় বসে আছে। তারা অন্যায়ভাবে দেশনেত্রীকে আটকে রেখেছে। কারণ একটাই, তিনি বাইরে থাকলে এসব অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলবেন। এ অবৈধ সরকার রাষ্ট্রের সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে ফেলেছে। আজকে বিচার বিভাগ, প্রশাসন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এবং মিডিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করে রেখেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আপনারা দেখছেন কীভাবে লুট করছে; কীভাবে দুর্নীতি করছে। আজকে দুর্নীতির পাহাড় গড়ে তুলেছে। দুর্নীতির টাকা তারা দেশে-বিদেশে পাচার করে সম্পদের পাহাড় গড়ে তুলছে। বাংলাদেশের মানুষের প্রতি তাদের কোনও জবাবদিহিতা নেই। তারা বাংলাদেশের মানুষকে ভালোবাসে না বলেই গণতন্ত্রহীন একটা সরকার প্রতিষ্ঠা করেছেন।’

দেশবাসীর উদ্দেশে ফখরুল বলেন, ‘আসুন আজকে নিজেদের অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য, ভোটের অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য, কথা বলার অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য এ সরকারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াই। তাদের সরিয়ে একটা জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।’

মানববন্ধনে স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, আহমেদ আযম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মজিবুর রহমান সরোয়ার, খায়রুল কবির খোকন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল আউয়াল খান, কেন্দ্রীয় নেতা মফিকুল ইসলাম তৃপ্তি, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, স্বেচ্ছাসেব দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, কৃষক দলের সদস্য সচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Related posts

মেসির হ্যাটট্রিকে শিরোপার আরও কাছে বার্সা

Ashish Mallick

নাভারন সাতক্ষীরা নামক মোড়ে মদ ও ইয়াবাসহ আটক-১

Ashish Mallick

অতি দ্রুত খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে: মির্জা ফখরুল

Nurul Alam

Leave a Comment

* By using this form you agree with the storage and handling of your data by this website.