আলোড়ন নিউজ
Lead News সারাদেশ

করোনায় মারা যাওয়া দুদক পরিচালকের দাফনের পর ছেলের হৃদয় বিচারক দীর্ঘ স্ট্যাটাস

নিজস্ব প্রতিবেদক: গতকাল সোমবার (৬ এপ্রিল) সকাল সাড়ে সাতটায় রাজধানীর কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে মারা যাওয়া জালাল সাইফুর রহমানকে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়। জানাজা ও দাফনকালে মৃত সাইফুর রহমানের কয়েকজন সহকর্মী ও মারকাজুল ইসলামের ক’জন স্বেচ্ছাসেবী ছাড়া আত্মীয়-স্বজন কেউই জানাজায় উপস্থিত হতে পারেননি। অথচ তিনি প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা ছিলেন।সাধারণত প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তার মৃত্যুতে জানাজা পড়তে বিপুল পরিমাণ লোকের সমাগম হয়।এ কেমন মৃত্যু! শেষবারের মতো তার মরামুখটা স্ত্রী- সন্তান দেখতে পারে নি।একমাত্র করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ায় তার লাশ চট্টগ্রামের ষোলশহরের পৈতৃক বাড়িতেও নেয়া হয় নি।

বাবার জানাজা সম্পূর্ণ হওয়ার পর মৃত সাইফুর রহমানের একমাত্র ছেলে শামীন রহমান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার বাবা ও পরিবারকে নিয়ে দীর্ঘ স্ট্যাটাসে তুলে ধরেন যা,তা হুবহু পাঠকদের উদ্দেশ্য তুলে ধরা হল:-

আমার বাবা (জালাল সাইফুর রহমান, পরিচালক, দুদক) আজকে সকালে সাড়ে ৭টার দিকে কার্ডিয়াক এরেস্টের কারণে মৃত্যুবরণ করেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)। উনি গত ৩০শে মার্চ করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে উত্তরার কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তবে দুঃখের বিষয় এই যে, উনার মৃত্যুর সংবাদ নিয়ে লেখা প্রতিবেদনেও অনেক ভুল-ভ্রান্তি চোখে পড়ে। সে ভুল-ভ্রান্তি গুলো আমি একটু তুলে ধরতে চাইঃ

১। আমি উনার একমাত্র সন্তান ছিলাম, আমার কোন ভাই-বোন নেই।

২। আমি এবং আমার আম্মু দুইজনই পরিপূর্ণ রূপে সুস্থ আছি।

৩। আমরা গত ৭ দিন ধরে দুইজনই সেল্ফ আইসোলেশনে আছি, কোন হাসপাতালে না। আমাদের দুইজনকে আরও ৭ দিন সেল্ফ আইসোলেশনে থাকতে হবে। (সেল্ফ আইসোলেশন বলতে ঘরের মধ্যে নিজেকে আলাদা করে রাখা, কারো সাথে দেখা সাক্ষাৎ কিনবা মেলামেশা না করা।)

সেল্ফ আইসোলেশনের কারণে না বাবার জানাজার অংশ হতে পেরেছি না উনাকে কবর দেওয়ার অংশ হতে পেরেছি, এর চেয়ে কঠিন কিছু আর নেই। উনাকে আজ ৪টার দিকে আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়। উনি একজন সৎ ও নিষ্ঠাবান মানুষ ছিলেন। উনার আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। আমার বাবা জীবিকার তাগিদে সরকারি আদেশ না আসা পর্যন্ত ২২শে মার্চ পর্যন্ত অফিস করেছিলেন তারপর থেকে তিনি বাসাতেই ছিলেন কিন্তু তবুও রক্ষা পাননি। তাই এখনও যারা ঘরে থাকার বিধিনিষেধ মানছেন না, তাদের সবাইকে ঘরে থাকার অনুরোধ জানাচ্ছি। আমি ব্যক্তিগত ভাবে চাই না বর্তমানে এই মূহুর্তে আমার এবং আমার পরিবারের উপর দিয়ে যা যাচ্ছে সেটা আমার শত্রুকেও মোকাবেলা করতে হোক।

বি.দ্রঃ আমার অনেক ফোন আসছে, অনেক ম্যাসেজ আসছে। তাই অনেকের ফোনই ধরতে পারিনি, অনেকের ম্যাসেজেরই সময় মত জবাব দিতে পারছিনা। সে জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি।

উল্লেখ্য, মারা যাওয়া দুদক পরিচালক প্রশাসন ক্যাডারের ২২তম ব্যাচের কর্মকর্তা ছিলেন। জ্বর-কাশি নিয়ে তিনি বেশ কিছু দিন ধরে কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সোমবার সকালে রাজধানীর কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। ২০১৭ সালের জুলাই মাসে জালাল সাইফুরকে দুদকের পরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।

Related posts

করোনায় ৩ দিন ধরে না খেয়ে থাকা বৃদ্ধের শেষমেষ খবর নিল এসপি মইনুল হাসান

Ashish Mallick

প্রধানমন্ত্রীর সাথে ভিডিও কনফারেন্সের পর পিপিই প্রদান করলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী

Ashish Mallick

মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ হতে ৩৭ হাজার সুন্দরীর আবেদন, এখন সেরা ২০

Ashish Mallick

Leave a Comment

* By using this form you agree with the storage and handling of your data by this website.