আলোড়ন নিউজ
Lead News চাকুরী সফল যারা সারাদেশ স্বাস্থ্য

করোনার সাথে ১৮ দিন লড়ে জয়ী হলেন সেই এসিল্যান্ড, জানালেন এক দীর্ঘ অভিজ্ঞতা!

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনার সাথে ১৮ দিন লড়ে জয়ী হলেন সেই ভৈরবের এসিল্যান্ড হিমাদ্রি খিসা। তিনি ভৈরবে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে গত ১৬ এপ্রিল তার নমুনা ঢাকায় পাঠানো হলে পরের দিন অর্থাৎ ১৭ এপ্রিল তার রিপোর্ট করোনা পজেটিভ আসে।এরপর থেকে  তিনি চিকিৎসকের পরামর্শে  হোম কোয়ারেন্টিনে ছিলেন।আর এই সময়ের মধ্যে গত ২৬ এপ্রিল ও ১ মে দুবার তার নমুনা পরীক্ষা করা হয়।পরপর দুটি রিপোর্টই করোনা নেগেটিভ আসে। সর্বশেষ আবারো ৩ মে তার নমুনা নেওয়া হয়। এবার শেষ রিপোর্টে করোনার নেগেটিভ এলে তাকে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়। তিনি এখন সুস্থ রয়েছেন। তবে দীর্ঘ এতদিনে বেশ অভিজ্ঞতাও লাভ করে। আর তা তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তুলে ধরেন। কেননা এই সময়কার মহামারি ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে গেলেও মনোবল না হারিয়ে নিজেকে কীভাবে নিয়ন্ত্রণ রাখতে হবে, তারও এক অভিজ্ঞতার কথা জানান তিনি। তার সম্পূর্ণ বিবৃতি পাঠকের উদ্দেশ্য তুলে ধরা হলো।

করোনার সাথে ১৮ দিন!!! দুইটা শব্দের মধ্যে যে এত দূরত্ব হতে পারে তা আগে কখনো ভাবতেই পারিনি।এই দুইটা শব্দ মুহুর্তের মধ্যে আপনার শরীরে ও মনে যে পরিবর্তন নিয়ে আসবে তা আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না। এই শব্দ দুটি- নেগেটিভ ও পজিটিভ। দুইজন করোনা পজিটিভ এস আইয়ের সাথে ডিউটি পালন ও একসপ্তাহ যাবত সর্দি লেগে থাকায় টেস্ট করায়।

গত ১৮ই এপ্রিল রাতে জানতে পারি আমার করোনা পজিটিভ।প্রথমেই আমি যা করেছি তা হল মনোবলকে শক্ত রেখেছি।নিজেকে প্রস্তুত করে নিয়েছি আগামী ১৫-২০ দিন কি করব,কি খাব এবং কিভাবে স্বাভাবিক জীবনে ফিরব ইত্যাদি বিষয়ে।সেদিন রাতেই ঘুমানোর আগে ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করে ওষুধ ও প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র লিস্ট করে রাখলাম। প্রথম দিন সকালেই পর্যাপ্ত পরিমাণ ওষুধ,ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ খাবার,দুধ,গরম পানির ফ্লাক্স,ঢাকনাযুক্ত ডাস্টবিন,টিস্যুসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনে রাখলাম। শুরু হল বেঁচে থাকার জন্য অন্যরকম যুদ্ধ।

দ্বিতীয় দিন সকালে বাড়ি থেকে ফোন দিল কে বা কারা নাকি বলেছে আমি মারা গেছি।এক সিনিয়র স্যারের পরামর্শে ফোন ধরা(শুধুমাত্র পরিবার,ডাক্তার ও সিনিয়র স্যারদের ফোন ব্যতীত),ফেসবুক,টিভি নিউজ দেখা বন্ধ করে দিলাম (এসব তথ্য আপনার মনকে দুর্বল করে দেয়ার জন্য যথেষ্ট)।কোনকিছু স্পর্শ করার আগে হেক্সিসল দিয়ে হাত রাব করা,বারবার হাত ধোয়া, বাইরের জিনিস ঢুকানোর আগে ব্লিচিং পাউডারের সলিউশনের স্প্রে করা যেন জীবনের সবচেয়ে বড় ও গুরুত্বপূর্ণ কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছিল।

সকালে উঠেই সময়মত খাওয়া,খাওয়ার আগে মধু লেবুর গরম পানি খাওয়া,প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-সি খাওয়া,পুষ্টিকর খাবার খাওয়া এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধিগুলো অনুসরণ করার পাশাপাশি নিয়ম করে ব্যায়াম ও ঘরের মধ্যে হাটাহাটি করেছি। এবার আসি এসময়গুলো কিভাবে কাটিয়েছি। মনটাকে ফ্রেশ রাখার জন্য মজার মুভি,মজার মজার সব ভিডিও দেখে, বাগানের গাছগুলো পরিচর্যা করে সময় কাটিয়েছি।এরমধ্যে পড়া হয়ে গেছে কয়েকটা বই।প্রতিদিন নিজের রান্না নিজেই করেছি,প্রতিদিন ঘর পরিষ্কার,কাপড় ধোয়া সব নিজেই করেছি। অবশেষে ৩০তারিখের প্রথম টেস্টের রেজাল্ট নেগেটিভ আসল।আর আজ দ্বিতীয় টেস্টের রেজাল্টও নেগেটিভ আসল।সবার দোয়া,আশীর্বাদ ও আন্তরিক সহযোগিতাই আজ আমাকে সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছে। মনে রাখবেন।এই অসুখের এখনো পর্যন্ত কোন ওষুধ আবিষ্কার হয়নি।তাই নিজের মনকে শক্ত রেখে স্বাস্থ্যবিধিগুলো মেনে চলতে পারলেই আপনিই পারবেন জয়ীর বেশে ফিরতে। আসুন সবাই ঘরে থাকি। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি। করোনাকে প্রতিরোধ করি।

উল্লেখ্য, অ্যাসিল্যান্ড হিমাদ্রি খিসার বাড়ি রাঙ্গামাটি সদর এলাকায়। হিমাদ্রি খিসা ৩৪তম বিসিএস ক্যাডারে উত্তীর্ণ হয়ে প্রশাসনে চাকরি পেয়ে প্রথমে বাগেরহাট সদরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সহকারী কমিশনার হিসেবে কর্মস্থলে যোগদান করেন।তার পর ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলায় অ্যাসিল্যান্ড হিসেবে বদলি হন। এর পর গত বছরের ৭ ডিসেম্বর ভৈরব উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে কাজে যোগদান করেন। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লেখাপড়া করেন।

Related posts

বিয়ের পিঁড়িতে লিটন দাশ। পাত্রী কে???

Nurul Alam

ডেঙ্গু নিধনে কার্যকর ওষুধ ছিটানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

Ashish Mallick

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা চীনের পক্ষ অবলম্বন করার অভিযোগ ট্রাম্পের

Ashish Mallick

1 comment

Cheap Essay Writing Service June 3, 2020 at 12:11 pm

A patient looks towards the worldwide economy in these times of Covid-19, and you’ll realize that the whole of humanity will need to undergo an entire makeover. But yes, there are two options – you’ll either face confidently or cow down in fear. After some weeks, you’ll haven’t any option but to form one choice. during this article, you gain information on the way to fulfill your duty as a person’s being in Corona Crisis. Coronavirus has shown humanity that it doesn’t look after any caste, creed, or any religion. to remain alive, you would like to follow a group of rules suggests by the govt and medical agencies.

Reply

Leave a Comment

* By using this form you agree with the storage and handling of your data by this website.