আলোড়ন নিউজ
Lead News অপরাধ সারাদেশ

চকরিয়ায় বৃদ্ধকে বিবস্ত্র করে পেটানো যুবলীগ নেতা স্থায়ী বহিস্কার, গ্রেপ্তারের তৎপরতা পুলিশের

নিজস্ব প্রতিবেদক: চকরিয়ায় নুরুল আলম (৭২) নামের এক বৃদ্ধকে বিবস্ত্র করে পেটানোর অভিযোগ উঠা সেই যুবলীগ নেতাকে জেলা যুবলীগের নির্দেশক্রমে স্থায়ীভাবে বহিস্কার করলেন ঢেমুশিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ। একই সাথে অভিযুক্ত যুবলীগ নেতাকে গ্রেপ্তারের তৎপরতা চালাচ্ছে স্থানীয় পুলিশ।

জানা গেছে, অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা আনছার আলম ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য ছিলেন। দলীয় শৃঙ্খলতা ভঙ্গের দায়ে তাকে উক্ত দুটি পদ থেকে ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের স্বাক্ষরিত বহি:স্কারদেশ নোটিশ দ্বারা স্থায়ীভাবে বহিস্কার করা হইল।

অভিযুক্ত বৃদ্ধ নুরুল আলম স্থানীয় প্রবীন মুরব্বী, প্রবীন আওয়ামী লীগ নেতা ও ঢেমুশিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য। অন্যদিকে তার এক ছেলে আশরাফ হোছাইন ঢেমুশিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহব্বায়ক দায়িত্বে আছেন ।
বেশ কিছুদিন আগের এক ঘটনার একটি ভিডিও গতকাল মঙ্গলবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

সেখানে দেখা গেছে কয়েকজন যুবক ওই বৃদ্ধ নুরুল আলমকে মারছে কিল-ঘুষি, পরনের লুঙ্গি, গেঞ্জি টেনে ছিড়ে ফেলছে সাথে সাথে অসভ্য গালিগালজও করছে। আর কয়েকজন যুবক তা মোবাইলের ক্যামরায় ভিডিও ধারণ করছে। তবে কেউ এগিয়ে আসেনি ওই বৃদ্ধকে বাঁচাতে। এভাবেই হেনস্থা করা হয়েছে বয়োবৃদ্ধ নুরুল আলমকে।

গত মাসের ২৪ মে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ছয়কুড়িটিক্কা পাড়ায় মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে। আর এ ঘটনায় জড়িত যুবলীগ নেতার নাম আনছুর আলম (৩৫)। সে একই ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি এবং মৃত মনির উল্লাহর ছেলে।
এঘটনার পর গত ৩১ মে রাতে বৃদ্ধ নুরুল আলমের ছেলে আশরাফ হোসাইন বাদী হয়ে চকরিয়া থানা একটি এজাহার দায়ের করেন। তবে, এজাহারটি এখনো তদন্তধীন বলে জানা গেছে।

এতে আসামি করা হয়েছে- ওই এলাকার বদিউল আলম (৫৫), আনছুর আলম (৩৫), শাহ আলম (৫২), শাহ আলমের স্ত্রী আরেজ খাতুন (৪৮), বদিউল আলমের ছেলে মিজানুর রহমান (২৮), আবদুল জাব্বারের ছেলে রিয়াজ উদ্দিন (৩২), জয়নাল আবেদিন (৩০) এবং মনজুর আলমের ছেলে মো.রুবেল (২৮)।

এজাহারে বাদী উল্লেখ করেছেন, গত ২৪ মে আমার বয়োবৃদ্ধ বাবা নুরুল আলম ঈদের বাজার করে ঢেমুশিয়া স্টেশন থেকে টমটম গাড়িতে করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে আনছুর আলমের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী টমটম থেকে আমার বাবাকে নামিয়ে নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে পড়নে থাকা লুঙ্গি, গেঞ্জি ছিড়ে পেলে। পাশাপাশি মারধর ও অসভ্য গালিগালাজও করে। কয়েকজন যুবক এসব ঘটনার মোবাইলের ক্যামরাতে ধারণ করে। এসময় আমার বাবা বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করতে থাকে। পরে ঘটনাটি শোনার পর আমার ছোট ভাই সিএনজি চালক সালাহউদ্দিন স্থানীয় লোকজনসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে আমার বাবাকে উদ্ধার করে স্থানীয় এক চিকিৎসকের কাছে নিয়ে চিকিৎসা করান।

মামলার বাদী আশরাফ হোসাইন এজাহারে আরো দাবি করেন, ঘটনার সময় আমার বাবার ব্যবহৃত একটি মোবাইল সেট ও পকেটে থাকা নগদ সাড়ে সাত হাজার টাকাও ছিনিয়ে নেয়।

আশরাফ হোসাইন আরও বলেন, তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে আমার বাবার উপর অমানবিক এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে ঘটনার অন্যতম সন্ত্রাসী আনছুর আলম। সে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা হওয়ায় তার বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়না। তার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ রয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢেমুশিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আলম জিকু বলেন, তুচ্ছ একটি ঘটনার জের ধরে এমন অমানবিক আচরণ করা হয়েছে বয়স্ক নুরুল আলমের সাথে। তিনি এই এলাকার বয়োবৃদ্ধ। সবাই ওনাকে খুব সম্মান করে। এলাকার কিছু চিহিৃত সন্ত্রাসী ঘটনাটি ঘটিয়েছে। বিষয়টি আমাকে জানানোর পর থানায় এজাহার দেয়ার জন্য পরামর্শ দিয়েছি।

ঘটনার বিষয়ে জানতে আনছুর আলমের মোবাইলে অনেকবার চেষ্টা করা হলেও তার মোবাইল বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর ছেলে আশরাফ হোসাইন একটি এজাহার দিয়েছি বলে শুনেছি। তবে এজাহারটি এখনো আমার হাতে আসেনি। এজাহারটি হাতে আসলে খুব তড়িৎ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

চকরিয়া সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার (এএসপি) কাজী মো. মতিউল ইসলাম বলেন, বিষয়টা আমি ফেসুবকে দেখেছি। যারা এই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আপলোড করেছে মোটেও ভালো কাজ হয়নি। ভুক্তভোগী ওই বৃদ্ধেরও পরিবার-পরিজন রয়েছে। তিনি আরো বলেন, ঘটনার বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আমি ওসিকে নির্দেশ দিয়েছি। যারা এই ঘটনাটি ফেসবুকে ভাইরাল করেছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Related posts

সিরাজ উদ দৌলার যত ‘কুকীর্তি!

Nurul Alam

আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশ আজ

Ashish Mallick

লামা থানার ওসি`র সাথে সনাতন ধর্মের নেতৃবৃন্দের মতবিনিময় সভা

Ashish Mallick

Leave a Comment

* By using this form you agree with the storage and handling of your data by this website.