আলোড়ন নিউজ
Lead News সারাদেশ স্বাস্থ্য

দেশে নতুন করে লকডাউন: ৫০ জেলা পুরোপুরি লকডাউন, ১৩ জেলা আংশিক এবং ১ জেলা লকডাউন মুক্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাভাইরাস পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত পুরো দেশকে রেড জোন ( পুরোপুরি লকডাউন), ইয়েলো জোন ( আংশিক লকডাউন) ও গ্রিন জোন ( লকডাউনমুক্ত) এই তিন জোনে চিহ্নিত করছে সরকার। করোনা আক্রান্তের হার কোন এলাকায় কেমন-তার উপর ভিত্তি করে এই তিন জোনে ভাগ বা ম্যাপিংয়ের কাজটি করছে আইসিটি মিনিস্ট্রি। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় করণীয় নিয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগ থেকে জোনভিত্তিক লকডাউনসহ বিকল্প প্রস্তাবনা তৈরি করা হয়েছে। আজ রোববার তা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে উপস্থাপিত হবে। সবকিছু পর্যালোচনা করে নির্দেশনা প্রদান করবেন তিনি।

বেশি আক্রান্ত এলাকাকে রেড, অপেক্ষাকৃত কম আক্রান্ত এলাকাকে ইয়োলো ও একেবারে কম আক্রান্ত বা সংক্রমণমুক্ত এলাকাকে গ্রিন জোন হিসেবে চিহ্নিত করে স্বাস্থ্যবিধি বাস্তবায়ন করা হবে। গ্রিন জোনে সতর্কতা এবং ইয়েলো জোনে সংক্রমণ যেন আর না বাড়ে সেজন্য পদক্ষেপ থাকলেও রেড জোনে করোনার বিশেষ গাইডলাইন অনুযায়ী কঠোর হবে পুলিশ।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে দেশের তিনটি বিভাগ, ৫০টি জেলা ও ৪০০টি উপজেলাকে পুরোপুরি লকডাউন চিহ্নিত করেছে। পাঁচটি বিভাগ, ১৩টি জেলা ও ১৯টি উপজেলাকে আংশিক লকডাউন হিসেবে চিহ্নিত করেছে। আর লকডাউন নয় এমন একটি জেলা ও ৭৫ টি উপজেলাকে চিহ্নিত করা হয়েছে। এবারের লকডাউনে বাস্তবায়ন হবে স্বাস্থ্যবিধি ও আইনি পদক্ষেপ।

মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে শনিবার (৬ জুন) সর্বশেষ আপডেট করা তালিকায় বরিশাল বিভাগের মধ্যে পুরোপুরি লকডাউন দেখানো হচ্ছে বরগুনা, বরিশাল, পটুয়াখালী ও পিরোজপুরকে। এই বিভাগে আংশিক লকডাউন দেখানো হচ্ছে ভোলা ও ঝালকাঠি।

চট্টগ্রাম বিভাগে পুরোপুরি লকডাউন হিসেবে দেখাচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চাঁদপুর, কুমিল্লা, কক্সবাজার, ফেনী, খাগড়াছড়ি, লক্ষ্মীপুর ও নোয়াখালী। আর আংশিক লকডাউন বান্দরবান, চট্টগ্রাম ও রাঙ্গামাটিকে দেখানো হচ্ছে।

ঢাকা বিভাগের মধ্যে পুরোপুরি লকডাউন হিসেবে গাজীপুর, গোপালগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, মাদারীপুর, মানিকগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী, রাজবাড়ী, শরীয়তপুর ও টাঙ্গাইলকে বিবেচণায় এনেছে । এই বিভাগে ম্যাপে শুধুমাত্র ঢাকা ও ফরিদপুর আংশিক লকডাউন রয়েছে।

খুলনা বিভাগে চুয়াডাঙ্গা, যশোর, খুলনা, মেহেরপুর, নড়াইল ও সাতক্ষীরাকে পুরোপুরি লকডাউন ইঙ্গিত করছে । এই বিভাগে আংশিক লকডাউন দেখানো হচ্ছে বাগেরহাট, কুষ্টিয়া ও মাগুরাকে। খুলনা বিভাগেই ঝিনাইদহ জেলাকে দেশের একমাত্র এখনো পর্যন্ত লকডাউন মুক্ত হিসেবে দেখাচ্ছে ম্যাপে।

রাজশাহী বিভাগের মধ্যে পুরোপুরি লকডাউন বগুড়া, জয়পুরহাট, নওগাঁ, নাটোর ও রাজশাহী। আর এই বিভাগে আংশিক লকডাউন হিসেবে রয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ, পাবনা ও সিরাজগঞ্জ।

রংপুর বিভাগে থাকা সব জেলাকেই পুরোপুরি লকডাউন দেখাচ্ছে ম্যাপে। এসব জেলাগুলো হলো- দিনাজপুর, গাইবান্ধা, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, নীলফামারী, পঞ্চগড়, রংপুর ও ঠাকুরগাঁও।

সিলেট বিভাগের ক্ষেত্রেও সব কয়টি জেলাকেই দেখাচ্ছে পুরোপুরি লকডাউন। বিভাগে থাকা জেলাগুলো হলো- হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার, সুনামগঞ্জ ও সিলেট।

ময়মনসিংহ বিভাগেও বাদ যায়নি। এই বিভাগেও প্রত্যেক জেলাকে পুরোপুরি লকডাউন হিসেবে চিহ্নিত করেছে। এসব জেলাগুলো হলো জামালপুর, ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা ও শেরপুর।

এদিকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে ঢাকা মহানগরীর ৩৮টি এলাকাকে আংশিক লকডাউন (ইয়েলো জোন বিবেচিত) হিসেবে দেখানো হচ্ছে। তবে লকডাউন নয় (গ্রিন জোন বিবেচিত) বলে দেখানো হচ্ছে ১১টি এলাকাকে। এখন পর্যন্ত পুরোপুরি লকডাউন (রেড জোন বিবেচিত) হিসেবে ঢাকার কোনো এলাকাকে দেখানো হচ্ছে না।

মহানগরীর আংশিক লকডাউন বলে চিহ্নিত ৩৮টি এলাকা হলো- আদাবর, থানা, উত্তরা পূর্ব, উত্তরা পশ্চিম, ওয়ারী, কদমতলী, কলাবাগান, কাফরুল, কামরাঙ্গীরচর, কোতয়ালী, খিলক্ষেত, গুলশান, গেন্ডারিয়া, চকবাজার, ডেমরা, তেজগাঁও, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল, দক্ষিণখান, দারুসসালাম, ধানমন্ডি, নিউমার্কেট, পল্টন মডেল, পল্লবী, বংশাল, বাড্ডা, বিমানবন্দর, ভাটারা, মিরপুর মডেল, মুগদা, মোহাম্মদপুর, যাত্রাবাড়ী, রমনা মডেল, লালবাগ, শাহআলী, শাহজাহানপুর, শেরেবাংলা নগর, সবুজবাগ, সুত্রাপুর ও হাজারীবাগ থানা এলাকা।

আর লকডাউন নয় বলে চিহ্নিত ১১টি এলাকা হলো- উত্তরখান থানা, ক্যান্টনমেন্ট থানা, খিলগাঁও, তুরাগ, বনানী, ভাষানটেক, মতিঝিল, রামপুরা, রূপনগর, শাহবাগ ও শ্যামপুর থানা এলাকা।

Related posts

একাদশ জাতীয় সংসদের পঞ্চম অধিবেশন বসছে আজ বিকাল সোয়া ৪টায়

Ashish Mallick

‘যুদ্ধের মতো পরিস্থিতি’ তৈরি করতে পারে ভারত: ইমরান

Ashish Mallick

ফুলপুরে জাতীয় বীমা দিবস পালনে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

Ashish Mallick

Leave a Comment

* By using this form you agree with the storage and handling of your data by this website.