আলোড়ন নিউজ
Lead News সারাদেশ স্বাস্থ্য

এবার জনগণের মালিকানায় আন্তর্জাতিক মানের বড় হাসপাতাল গড়তে চান ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক: গত ২৫ মার্চ রাত ১০ টা ১৪ মিনিটে ইতালির একটি ফিল্ড হাসপাতালের ছবি দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে চট্টগ্রামে করোনা চিকিৎসার ফিল্ড হাসপাতাল গড়ে তোলার উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ বিদ্যুৎ বড়ুয়া। এরপর নাভানা গ্রুপের ভাইস-চেয়ারম্যান সাজেদুল ইসলাম নিজেদের একটি ভবন বরাদ্দ দেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন। পরবর্তীতে হাসপাতালের নির্ধারিত স্থানটি পরিদর্শন শেষে অস্থায়ী হাসপাতাল নির্মাণে অনুমতি দিয়েছেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক। যার প্রেক্ষিতে পহেলা এপ্রিল থেকে হাসপাতালটির নির্মাণের কার্যক্রম শুরু করে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত এক টানা কাজ করার ফলে ৫০ শয্যার পূর্ণ হাসপাতালে রূপ নেয়। এর মধ্যে কোন প্রকার আনুষ্ঠানিকতা না করে পরের দিন ২১ এপ্রিল রোগী ভর্তি করানোর মধ্য দিয়ে হাসপাতালটির সেবা কার্যক্রম শুরু হয়ে উঠে। কার্যক্রম শুরুর পর থেকে গত ১২ জুন পর্যন্ত হাজারের উপর রোগী সেবা দিয়েছে। তবে ইতিমধ্যে হাসপাতালটি অন্যান্য হাসপাতালের চেয়ে অনেক আন্তরিকতার সহিত সেবা দেওয়াতেই খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠে।

এর মধ্যে দেশে প্রতিনিয়ত করোনা রোগী শনাক্তের হার এবং মৃত্যুর হার বেড়েই চলছে। দেখা যাচ্ছে অনেক আপনজনের আহাজারী। বিশেষ করে তা আবার চট্টগ্রামে। চট্টগ্রামে সরকারী/ বেসরকারী হাসপাতালগুলো গতানুগতিক ধারায় তাদের সেবা অব্যহত রাখছে। করোনা উপসর্গ বা করোনায় আক্রান্ত কোন রোগীকে ভর্তি নিচ্ছে না বলে নিত্যদিনের অভিযোগ হাসপাতালগুলোর বিরুদ্ধে। এর মধ্যে উপযুক্ত চিকিৎসা সেবা না পেয়ে শিল্পপতি হতে শুরু করে ব্যবসায়ী, রাজনৈতিক সংগঠনের নেতা ও সাধারণ মানুষের জীবন দিতে হয়েছে। এসব ঘটনার চাক্ষুষ দৃশ্য খুব ভালোভাবে উপলব্ধি করতে পেরেছে বর্তমান রোগীদের আস্থার হাসপাতাল নামক চট্টগ্রাম ফিল্ড হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া।

চলমান প্রাণঘাতী মহামারি এবং ভবিষ্যৎতে পরিস্থিতি মোকাবিলার তাগিদে জনগণের মালিকানায় আন্তর্জাতিক মানের বড় হাসপাতাল গড়তে চান ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া। এ নিয়ে তিনি শুক্রবার দিবাগত রাত চারটার দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করেছেন, আপন মানুষদের মৃত্যু ও সাধারণ মানুষের কষ্ট আর হাহাহার দেখে একটু বড় হাসপাতাল করার স্বপ্ন দেখি। যেখানে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির মেডিকেল যন্ত্রপাতি ও সেবা থাকবে। মালিক হবে জনগণ। শুধুমাত্র দায়িত্বশীল ও আন্তরিক মানুষই কাজ করবেন। এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে এখনই কাজ শুরু করতে চাই। বিদেশমুখী না হয়ে দেশই হউক স্বাস্থ্যসেবার ঠিকানা।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়ার ছোট ভাই জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. বিদ্যুত বড়ুয়া চট্টগ্রাম লোহাগাড়ার সন্তান। দীর্ঘদিন তিনি প্রবাসে আন্তর্জাতিকমানের হাসপাতালে চিকিৎসক হিসেবে কাজ করেছেন।

উল্লেখ্য, দেশের করোনা পরিস্থিতির ভয়াবহতা আঁচ করতে পেরে চট্টগ্রামের সন্তান হিসাবে চট্টগ্রামেই একটি হাসপাতাল গড়ে তোলার তাগিদ অনুভব করেন। চট্টগ্রাম ফিল্ড হাসপাতাল গড়ে তোলার উদ্যোগ নিয়ে তিনি লিখেছিলেন, ৭১ এর যুদ্ধে যখন দেশ স্বাধীন করতে গিয়েছিল সবাই, অস্ত্র চালানো দূরের কথা-অস্ত্রও ৩ ফুট কাছ থেকে দেখেনি কোনদিন। কিন্তু কেউ সম্মুখ সমরে জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছে আবার কেউ সহযোগী হিসেবে বিভিন্ন রসদ জুগিয়েছে। সম্মুখ সমরে যারা তারা মুক্তিযোদ্ধা হলে পাশাপাশি অন্যরা সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে চিরস্মরণীয়। ‘তেমনি করোনা হাসপাতাল নির্মাণের পথে যারা লাইক, কমেন্টস ও শেয়ার দিয়ে আমাদের উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছেন, সবাই করোনা হাসপাতাল নির্মাণের সহযোগী সৈনিক। আমাদের হাসপাতাল ফিল্ড হাসপাতাল। মানবিক হয়ে পাশে থাকুন’।

Related posts

র‌্যাব-১০ এর মাদক বিরোধী অভিযানে রাজধানীর কদমতলী এলাকা থেকে গাঁজাসহ ০১ জন আটক

Ashish Mallick

বর্তমান সরকারি মুড়াপাড়া কলেজটি ছিলো প্রাচীন জমিদার বাড়ি।

Shakil Ahmed

গণধর্ষণ মামলার আসামিসহ ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২

Ashish Mallick

Leave a Comment

* By using this form you agree with the storage and handling of your data by this website.