আলোড়ন নিউজ
Lead News রাজনীতি সারাদেশ

নাসিমের মৃত্যুতে আবেগাপ্লুত হয়ে ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়ার এক বিবৃতি

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় চারনেতার অন্যতম ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলীর ছেলে , বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য,১৪ দলের সম্বনয়ক,সাবেক ডাক,টেলিযোগাযোগ, গণপূর্ত, স্বরাষ্ট্র ও স্বাস্থ্য মন্ত্রী, সিরাজগঞ্জ-১ আসনের পাঁচবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য, বর্ষীয়ান জননেতা মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যুতে  আওয়ামী লীগ পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। যিনি মুক্তিযুদ্ধে  অংশ গ্রহণ করেছিলেন । যার স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনসহ বাংলাদেশের সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে ভূমিকা ছিল উল্লেখযোগ্য। বর্ণাঢ্য রাজনীতির ইতিহাসে দীর্ঘদিনের কথা স্মরণ করে  আবেগাপ্লুত হয়ে  আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া শোক প্রকাশ করে এক বিবৃতি দেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ২০১৬ সালের অক্টোবরে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ২০তম কাউন্সিল এর পরে আমি দলটির উপ-দপ্তর সম্পাদক হিসেবে কাজ করার সৌভাগ্য অর্জন করি। একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে যারা ছিলেন আমার কাছে পূজনীয়, বাংলাদেশের রাজনীতির জীবন্ত কিংবদন্তী, তাদের অনেকের সাথে কাজ করার সুযোগ হয়। তাদের মধ্যে জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ ক্যাপ্টেন মনসুর আলীর সুযোগ্য পুত্র মোহাম্মদ নাসিম ছিলেন অগ্রগণ্য। তিনি ছিলেন ১৪ দলের মূল নেতা, মুখপাত্র।

আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক হিসেবে ১৪ দলের দপ্তরের সার্বিক কাজটিও আমাকে করতে হতো। এ কারণেই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম এর সাথে আমার যোগাযোগটা ছিল নিয়মিত। কাজের মাধ্যমেই বাংলাদেশের রাজনীতির অন্যতম সিনিয়র নেতা মোহাম্মদ নাসিমকে চিনেছি। তিনি খুব বেশি ম্যাচিউরড একজন পলিটিশিয়ান ছিলেন। যে কোন সংকটে তার রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত – বক্তব্য ছিল খুবই ব্যালেন্সড। আমৃত্যু মোহাম্মদ নাসিম জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি অনুগত ছিলেন।


অনেক অভিজ্ঞতার কারণে নাসিম ভাই বাংলাদেশের রাজনীতির একজন প্রাজ্ঞ বিশ্লেষক ছিলেন। তিনি আমাকে বিশেষ স্নেহ করতেন। যখন টেলিফোন করতেন বা কথা বলতেন, আমার প্রতি তার স্নেহ ও ভালোবাসা প্রতিফলিত হতো। নাসিম ভাইয়ের পরিবারের এক সদস্যের মুখেও জেনেছিলাম, একদিন তিনি বাসার খাবার টেবিলে কোন এক বিষয়ে আমার গল্প করছিলেন।


নাসিম ভাই করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। আওয়ামী লীগের একজন কর্মী হিসেবে নাসিম ভাইয়ের শরীরের খবর রাখা আমার দায়িত্ব ছিল। প্রতিদিন নাসিম এর পুত্র তানভীর শাকিল জয় এর মাধ্যমে নাসিম ভাইয়ের খবর নিতাম। নাসিম ভাই কয়েকদিন যাবত সংকটাপন্ন অবস্থায় ছিলেন। যে খারাপ সংবাদটির জন্য সবসময় ভয়ে থাকতাম আজ সকালে সেই খবরটিই পেলাম। নাসিম ভাই আমাদের মাঝে নেই।
তিনি এমন একটি সময়ে বিদায় নিলেন যখন সারাবিশ্ব করোনায় আক্রান্ত। যার কারণে নাসিম ভাইয়ের প্রাপ্য সম্মান আর আমাদের শোক প্রকাশের আয়োজনও সীমিত রাখতে হচ্ছে। শ্রদ্ধেয় নাসিম ভাই, আপনি পরপারে শান্তিতে থাকুন। আপনার আত্মার শান্তি কামনা করি।

Related posts

চট্টগ্রাম হাসপাতালে কে সেই আনসার, ২০ টাকা না দিলে ঢুকতে দেয় না!

Ashish Mallick

রাজশাহীতে ঋনের বলি হয়ে ইউপি সদস্যের আত্মহত্যা

Ashish Mallick

আগামী ৫ বছরের মধ্যে বিদ্যুৎ লাইন বিহীন দেখা যাবে সকল শহর

Ashish Mallick

Leave a Comment

* By using this form you agree with the storage and handling of your data by this website.