আলোড়ন নিউজ
Lead News সারাদেশ

ঢামেকে কভিড-১৯ এর চিকিৎসকদের থাকা-খাওয়া এক মাসে ২০ কোটি টাকা! বিষয়টির ব্যাখ্যা দিলেন ব্রিগেডিয়ার নাসির

নিজস্ব প্রতিবেদক: গত দুই দিন ধরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কভিড-১৯ এর চিকিৎসকদের থাকা-খাওয়া বাবদ এক মাসে ২০ কোটি টাকা খরচ হয়েছে বলে এমন একটি তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। কিন্তু তথ্যের সত্যতা যাচাই করতে গিয়ে জানা গেছে, মূলত দুই মাসের খরচ বাবদ ২০ কোটি টাকা ব্যয় দেখিয়েছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে এ বিষয়ে সুস্পষ্ট ব্যাখা দিলেন হাসপাতালটির পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন ।

তিনি বলেন, এখানে শুধু চিকিৎসক নয়,কভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসা কাজে জড়িত চিকিৎসক, নার্স ও অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী ও স্টাফদের থাকা-খাওয়া ও যাতায়াত বাবদ দুই মাসে ব্যয় ধরা হয়েছে ২০ কোটি টাকা।

গত ১ মে থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (ডিএমসিএইচ-২) ভবন-২ (নতুন ভবন) পুরোটা এবং শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক ইনস্টিটিউটের ৬০টি বেডকে করোনা হাসপাতাল হিসেবে চালু করা হয় । সেই হিসেবে দুই মাস পূর্ণ হয়েছে।

এই হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য ১৫২ জন চিকিৎসক, নার্স, অন্যান্য স্টাফ এবং আনসারসহ প্রায় দুই হাজার কর্মী নিয়োগ দেয়। যেহেতু এরা কভিড-১৯ রোগীদের সেবায় নিয়োজিত, তাই তাদের বিভিন্ন ভাগে ভাগ করে ডিউটিতে দেওয়া হয়। প্রতিটি গ্রুপ সাত দিন ডিউটি করে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে যায়। তারপর পরিবারের সঙ্গে এক সপ্তাহ কাটিয়ে আবার ডিউটিতে ফেরে। এই চিকিৎসক, নার্স ও অন্য স্টাফদের থাকা ও খাওয়ার জন্য ঢাকা মেডিকেল কর্তৃপক্ষ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ৩০টি হোটেল ভাড়া করা হয়েছে। তাদের যাতায়াতের জন্য ভাড়া করা হয় বেশকিছু মাইক্রোবাস। এছাড়া প্রত্যেকের খাওয়া বাবদ দৈনিক ৫০০ টাকা করে বরাদ্দ দেওয়া হয়।

থাকা, খাওয়া ও যাতায়াতের তিন খাতে মে ও জুন মাসে ২০ কোটি টাকার বরাদ্দ চেয়ে ডিএমসিএইচ কর্তৃপক্ষ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে একটি প্রস্তাবনা পাঠায়। প্রস্তাবটি অনুমোদনের জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো হয় অর্থ মন্ত্রণালয়ে। সেই প্রস্তাবটি গত সপ্তাহে অনুমোদন দেয় অর্থ মন্ত্রণালয়। এরই মধ্যে অর্থ মন্ত্রণালয় এই টাকা ছাড় করেছে।

চিকিৎসা কাজে নিয়োজিত চিকিৎসকদের মধ্যে কাউকে রাখা হয়েছে রাজধানীর রিজেন্সি হোটেলে, কাউকে রাখা হয়েছে গুলশানের লেক শোর হোটেলে এবং কাউকে রাখা হয়েছে লা ভিঞ্চিতে। আর নার্স ও স্টাফদের রাখা হয়েছে নগরীর অন্যান্য হোটেলে।

অন্যদিকে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই হোটেলগুলোতে যথাযথ সেবা পাওয়া না পাওয়ার অভিযোগ করেছেন একাধিক চিকিৎসক। আর যাতায়াতের ক্ষেত্রে তাদের বিভিন্ন সময়ে ভোগান্তির শিকার হতে হয়েছে বলেও জানান। বিশেষ করে তাদের আনা-নেওয়ার জন্য যেসব মাইক্রোবাস ভাড়া করা হয়েছিল তার বেশিরভাগই ছিল নন-এসি। পিপিই পরে গাড়িতে বসা যেত না গরমের জন্য এমন অভিযোগও তুলে ধরেন তারা। তা ছাড়া গাড়ি প্রায়ই এক ট্রিপ দেওয়ার পর দ্বিতীয় ট্রিপ দিত না। তখন তাদের ঝুঁকি নিয়ে অন্য কোন পন্থায় যাতায়াত করতে হয়েছে বলে দাবী করেন।

উল্লেখ্য, ফেসবুকে ছড়ানো পোস্টটিতে লেখা ছিল, ঢাকা মেডিকেলে ১ মাসে কোভিড ইউনিটে দায়িত্ব পালনকারী ২০০ জন ডাক্তারের খাবারের বিল ঠিকাদার দেখিয়েছেন ২০ কোটি টাকা।
১ মাসে ২০ কোটি টাকা তে প্রতি ডাক্তারের ভাগে পরে ১০ লাখ টাকা।
সেই হিসেবে প্রতিদিন খাবার খরচ পরে ৩৩৩৩৩ টাকা।
সে হিসেবে প্রতিবেলায় ১১,১১১
২ পিস রুটির মূল্য ৭০০০ টাকা
১ টা কলার মূল্য ২০০০ টাকা
১ টি ডিমের মূল্য ১০০০ টাকা
১ টি ওয়ান টাইম প্লেটের মূল্য ১০০০ টাকা
১ টি টিস্যুর মূল্য ১১১ টাকা
এইটা দেখার পর ডাক্তারদের মনের অবস্থা কেমন হতে পারে সেটাই ভাবছি!

বিঃদ্রঃ-নিচের ছবিটি সকালের নাস্তা ও দুপুরের খাবার মেন্যূ।

এদেশ কিভাবে সোনার বাংলা হবে সেটাই ভাবছি!
বিকৃত মন মানসিকতার সংঘবদ্ধ একটি গোষ্ঠীর জন্য আজ দেশের মানুষের মধ্য সরকার এতো কিছু করার পরেও বদনাম রটে,
অসাধু ব্যাবসায়ীদের জন্য রসাতলে যাবে দেশ, এদেরকে কি দেখার কেউ নাই।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ-এই ধরনের দুর্নীতিবাজ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জ্ঞাপন করছি, এদের বাসার সামনে সাইনবোর্ড লাগানো হোক যে দুর্নীতিবাজের বাড়ি, তাহলে যদি এই …. রাষ্ট্রের সম্পত্তি চুরি করা বন্ধ করেন।

Related posts

বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের বর্তমান বেতন কত?

Ashish Mallick

ইরানে ফিরল সোলেমানির মৃতদেহ

Amith Santosh

সেন্টমার্টিন উত্তাল ,জাহাজ চলাচল বন্ধ

Ashish Mallick

5 comments

ปั้มไลค์ June 29, 2020 at 3:45 pm

Like!! Really appreciate you sharing this blog post.Really thank you! Keep writing.

Reply
ทิชชู่เปียกแอลกอฮอล์ June 29, 2020 at 3:46 pm

I learn something new and challenging on blogs I stumbleupon everyday.

Reply
แผ่นกรองหน้ากากอนามัย June 29, 2020 at 3:47 pm

A big thank you for your article.

Reply
เบอร์สวย June 29, 2020 at 3:49 pm

I like this website very much, Its a very nice office to read and incur information.

Reply
SMS June 29, 2020 at 3:50 pm

These are actually great ideas in concerning blogging.

Reply

Leave a Comment

* By using this form you agree with the storage and handling of your data by this website.